একা গুড্ডু সিং নন, ধূপগুড়িতে শোকজ নোটিশ আসতে পারে আরও কয়েকজনের নামে

TV22 Jun 29, 2020 - Monday Jalpaiguri 2.59K

নিউজ ডেস্ক,  TV22: ধূপগুড়ি পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান রাজেশ কুমার সিং কী দলের অন্দরে গভীর ষড়যন্ত্রের শিকার। নাকি তার মত হেভিওয়েট নেতাকে ২০২১ এর নির্বাচনের আগে যূপকাষ্ঠে বলি দিয়ে দল নিজেদের স্বচ্ছ প্রমাণ করতে চাইছে। শনিবার জেলা সভাপতি কৃষ্ণ কুমার কল্যাণীর পাঠানো শোকজ লেটার কিন্তু এধরণেরই প্রশ্ন তুলে দিয়েছে ধূপগুড়ির রাজনৈতিক মহলে। বিশেষ করে জেলায় যে আটজনকে শোকজ লেটার ধরানো হয়েছে, তাদের মধ্যে জেলায় সবচেয়ে প্রভাবশালী ও চর্চিত নাম রাজেশ কুমার সিং ওরফে গুড্ডু সিং৷ কিছুদিন আগে পর্যন্ত জেলা সভাপতি হওয়ার দৌড়ে যার নাম ছিল, রাতারাতি দুর্নীতির দায়ে দল সেই গুড্ডুকেই শোকজ চিঠি পাঠানোয় অবাক অনেকেই।


যদিও সূত্রের খবর শুধুমাত্র একা তৃণমূলী ভাইস চেয়ারম্যানকেই নয়। ধাপে ধাপে ধূপগুড়ির আরও কয়েকজন তৃণমূল নেতাকে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত করে তাদের শোকজ চিঠি ধরানো হতে পারে। মূলত ২০২১ সালের বিধান সভার আগে দলে স্বচ্ছতা ফিরিয়ে আনার বার্তা দিতে চাইছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়। আর জলপাইগুড়ি জেলায় আট জন নেতাকে শোকজ চিঠি পাঠিয়ে সেই স্বচ্ছতা অভিযানেরই সূচনা করলেন নেত্রী৷ অনেকেই মনে করছেন, জলপাইগুড়িতে হয়ত এই গেম প্ল্যান সাজানোর পেছনে জেলা তৃণমূল সভাপতি কৃষ্ণ কুমার কল্যাণীর হাত রয়েছে। তবে সূত্রের খবর কাদের শোকজ করা হবে তার তালিকা আগেই পিকের টিম নেত্রীর কাছে জমা দিয়েছে৷ অবশ্য গুড্ডুবাবুর অনুগামীদের দাবি, "পিকের টিমকে দাদার নামে ভুল তথ্য দিয়েছেন স্থানীয় নেতারা। সমস্ত অভিযোগই সাজানো।"


শোকজ নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে না চাইলেও গুড্ডু সিং বলেছেন, শোকজের জবাব পাঠানোর পর তিনি কিছুদিন অপেক্ষা করবেন। তার পর বড় কোনও পদক্ষেপ নেবেন। অন্যদিকে তৃণমূল জেলা সভাপতি কৃষ্ণ কুমার কল্যাণী জানান, তিনি শোকজের জবাব হাই কমান্ডকে পাঠিয়ে দেবেন। গোটা বিষয়টি দলের অভ্যন্তরীণ বলে তার দাবি।

আপনাদের মূল্যবান মতামত জানাতে কমেন্ট করুন ↴

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন

আপনার পছন্দ

বিজ্ঞাপন

আরও খবর

বিজ্ঞাপন